Fri. May 24th, 2019

উত্তর কোরিয়ার ওপর নজরদারিতে অজি বিমান

aaaaa

উত্তর কোরিয়ার ওপর জারি করা জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা সঠিকভাবে পালিত হচ্ছে কি না তা নজরদারি করতে অস্ট্রেলিয়া বিমান পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশটির দুইটি বিমান উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে নিষিদ্ধ বাণিজ্যে জড়িত জাহাজের ওপর নজর রাখবে। অস্ট্রেলিয়ার এই দুটি বিমানের সঙ্গে যোগ দেবে নিউ জিল্যান্ডের আরেকটি বিমান। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, নজরদারি কার্যক্রমে যুক্ত থাকাকালীন বিমানগুলো জাপানের কাদেনা ঘাঁটি ব্যবহার করবে ।

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ক্রিস্টোফার পাইন জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া এপি–৩সি ওরিয়ন মেরিটাইম পেট্রোল বিমান পাঠাবে। উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের জারি করা নিষেধাজ্ঞা সঠিকভাবে মেনে চলেছে কি না তা নজরদারি করার জন্য অস্ট্রেলিয়া আগেও একটি বিমান পাঠিয়েছে। এ বছরের শুরুতেই সেটিকে নজরদারির কাজে মোতায়েন করা হয়। পাইনের ভাষ্য, ‘এই সিদ্ধান্ত নিষেধাজ্ঞা ফাঁকি দিয়ে উত্তর কোরিয়ার অবৈধ বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়ার বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার ধারাবাহিক প্রতিরোধের অংশ।’

অন্যদিকে নিউ জিল্যান্ডের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন পিটার্স জানিয়েছেন, দেশটির বিমান বাহিনী একটি পি-৩কে২ বিমান পাঠাবে, যার উদ্দেশ্য জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা অমান্য উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যে ব্যবহৃত জাহাজের ওপর নজর রাখা। এমন কি মাঝ সমুদ্রে জাহাজ থেকে জাহাজে পণ্য ওঠানো নামানোর ঘটনা ঘটছে কি না তাও তাদের নজরদারির আওতায় থাকবে। পিটার্সের ভাষ্য, ‘দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার সম্প্রতি যে আলোচনা হয়েছে তাকে আমরা স্বাগত জানাই। কিন্তু যতক্ষণ পর্যন্ত উত্তর কোরিয়া আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি তার দায়িত্ব পালন না করবে ততদিন জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ঘোষিত নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকা উচিত।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

3 × five =